ব্রেকিং:
চাঁদপুরে স্কুল শিক্ষিকা হত্যার প্রতিবাদে মানববন্ধন ইসলাম কখনো সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ ও নারী নির্যাতনকে সমর্থন করে না জাপানের উচ্চকক্ষে শিনজো আবে’র জয় প্রিয়া সাহার বিরুদ্ধে তড়িঘড়ি ব্যবস্থা নয়: ওবায়দুল কাদের ছেলেধরা সন্দেহ হলে গণপিটুনি নয়, ৯৯৯ নম্বরে কল করুন ক্ষুধামুক্ত বাংলাদেশ গড়ার প্রত্যয়ে কাজ করছে সরকার: স্পিকার গত অর্থবছরে প্রায় শতভাগ প্রকল্প বাস্তবায়ন করেছে মন্ত্রণালয় ছেলেধরা গুজব বন্ধে সারাদেশে পুলিশের বার্তা ‘রাস্তায় পশুর হাট বসতে দেয়া হবে না’ সরকারি ব্যাংকে খেলাপি ঋণ কমেছে: অর্থমন্ত্রী হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদ থেকে প্রিয়া সাহাকে বহিষ্কার বন্ধুর প্রেমিকাকে চিঠি দিতে গিয়ে ছেলেধরা সন্দেহে গণপিটুনি শিকার গুগলের নতুন চমক ‘পিক্সেল ৪’ যানজট নিরসনে মাস্টারপ্ল্যান তৈরির নির্দেশ গাইবান্ধার পাঁচ রাজাকারের রায় যেকোনো দিন কয়লা চুরি: বড়পুকুরিয়ার সাত এমডিসহ ২৩ জনের বিরুদ্ধে চার্জশিট চাঁদপুরে ট্রাফিক পুলিশের অভিযানে ১১ সিএনজি অটোরিক্সা জব্দ কমিউনিটি পুলিশ চট্টগ্রাম রেঞ্জের প্রথম স্থানে চাঁদপুরের রব দেশি-বিদেশি বিনিয়োগ বৃদ্ধি পেয়েছে: শিল্প প্রতিমন্ত্রী ‘এরশাদের আসনে আওয়ামী লীগ অংশ নেবে’

বুধবার   ২৪ জুলাই ২০১৯   শ্রাবণ ৮ ১৪২৬   ২১ জ্বিলকদ ১৪৪০

দৈনিক চাঁদপুর
সর্বশেষ:
প্রিয়া সাহার বিরুদ্ধে তড়িঘড়ি ব্যবস্থা নয়: ওবায়দুল কাদের জাপানের উচ্চকক্ষে শিনজো আবে’র জয় রোহিঙ্গা সংকটে আসিয়ানভুক্ত দেশগুলোকে ভূমিকা রাখার আহ্বান জমি চাষ করতে গেলেন কৃষক, পেলেন ৬০ লাখ টাকার হিরা! ঈদুল আজহায় ৫ স্থানে পাওয়া যাবে রেলের অগ্রিম টিকিট
২৩

উচ্চবর্ণে বিয়ে, মেয়ের বাড়ির লোকজন কুপিয়ে মারল ছেলেকে

প্রকাশিত: ১১ জুলাই ২০১৯  

উচ্চবর্ণের মেয়েকে বিয়ে করার খেসারত ছেলেকে দিতে হলো প্রাণ দিয়ে। জায়গা মতো সুযোগ পেয়ে মেয়ের বাড়ির লোকজন ওই ছেলেকে কুপিয়ে মেরে ফেলেছে।
সোমবার রাতে ঘটনাটি ঘটেছে গুজরাটের আমেদাবাদ জেলার ভারমর গ্রামে। ঘটনায় শ্বশুরবাড়ির ৮ জনের বিরুদ্ধে খুনের মামলা রুজু করেছে পুলিশ।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যমের খবরে বলা হয়, দলিত সম্প্রদায়ের হরেশ সোলাঙ্কি প্রেমের সম্পর্কে জড়িয়েছিলেন উচ্চবর্ণের ঊর্মিমালা বেনের সঙ্গে। ছ’মাস আগে মা-বাবার বিরুদ্ধে গিয়ে সোলাঙ্কি বিয়ে করেছিলেন ঊর্মিমালা বেনকে। তারপরেই তাকে নিয়ে নিজের বাড়ি গান্ধীধাম চলে আসেন সোলাঙ্কি। যেখানে থাকেন সোলাঙ্কির বাবা-মাও। ঊর্মিমালার পরিবার বিয়েতে রাজি না থাকলেও এই বিয়ে মেনে নিয়েছিলেন সোলাঙ্কির পরিবার।

স্থানীয় পুলিশ জানায়, মেয়ের পরিবার চেয়েছিলেন এ বিয়ে ভেঙে দিতে। তারা তাদের মেয়েকে বাড়ি ফিরিয়ে আনতে চেয়েছিলেন। কিন্তু কিছুতেই তাকে ফিরিয়ে আনতে পারছিলেন না। তারা মেয়ের সঙ্গে কথা বলতে তাকে বাড়িতে ডেকে পাঠিয়েছিলেন। এরপরেই পরিবারের কথা মতো ভারমর গ্রামের বাড়িতে কথা বলতে যান ঊর্মিমালা বেন।

এ হত্যাকাণ্ডের নেপথ্যে রয়েছে আরো একটি ঘটনা। ঊর্মিমালা ভারগ্রামে যাওয়ার পরে স্ত্রীর সঙ্গে কোনোরকম যোগাযোগই করতে পারছিলেন না সোলাঙ্কি। তার মা-বাবা চাইছিলেন তাকে বাড়িতে ফিরিয়ে আনতে। নিজের ভাবি সন্তানের জন্যও চিন্তায় ছিলেন তিনি। এ ঝামেলা মেটাতে মহিলা সহায়তা কেন্দ্রের শরণাপন্নও হয়েছিলেন সোলাঙ্কি। পরে স্ত্রীকে ফিরিয়ে আনতে শ্বশুরবাড়ি রওনা দেন মহিলা সহায়তা কেন্দ্রের কর্মকর্তার সঙ্গে। ঊর্মিমালার বাড়ির সামনে পৌঁছাতেই গাড়ির ভেতর অপেক্ষা করতে থাকেন তিনি। কিন্তু হঠাৎ করেই সে সময় ঊর্মিমালার এক নিকট আত্মীয় এসে খবর দেন, সোলাঙ্কি গাড়ির ভেতর বসে আছে। আর একথা শোনা মাত্রই বাড়ির ভেতর থেকে ধারালো অস্ত্র নিয়ে ছুটে যান বাড়ির সদস্যরা। ধারালো অস্ত্রের আঘাতে মাথায় গুরুতর চোট পান সোলাঙ্কি। সেই সঙ্গে শরীরের বাকি অংশগুলিতেও গুরুতর চোট পান। আঘাত সহ্য করতে না পেরে তখনই মাটিতে লুটিয়ে পড়েন।এ ঘটনায় আটজনের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করেছে পুলিশ।

দৈনিক চাঁদপুর
দৈনিক চাঁদপুর
এই বিভাগের আরো খবর