ব্রেকিং:
হাজীগঞ্জের বড়কূলে আ’লীগের ত্রি- বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত চাঁদপুরের ডাকাতিয়া নদী দখল করে নানা রকম অবৈধ ব্যবসা মতলবে মাসিক আইনশৃঙ্খলা সভা অনুষ্ঠিত চাঁদপুরে পেঁয়াজের দাম সহনীয় পর্যায়ে রাখতে যৌথ অভিযান হারতে বসা আর্জেন্টিনাকে বাঁচালেন মেসি রাজনৈতিক স্ট্যান্টবাজি করতেই চিঠি দিয়েছে বিএনপি: তথ্যমন্ত্রী বাবাকে শেষ গোসলে রেখে পরীক্ষায় বসল জ্যোতি মতলব উত্তরে পুকুরের প্রকৃত মালিককে মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানি ধনাগোদা নদীতে ফেলে মাদ্রাসা ছাত্রকে হত্যার চেষ্টা চাঁদপুরে প্রাথমিক ও ইবতেদায়ী পরীক্ষার প্রথমদিন অনুপস্থিত ১৮৮৭ কচুয়ায় আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন ফরিদগঞ্জে মাদ্রাসা ছাত্রীর রহস্যজনক মৃত্যু পেঁয়াজের পাইকারি বাজারে অভিযান চাঁদপুরে এবার বীজ বরাদ্দ ৯৪৫ মে.টন ১শ` ৪০ কোটি টাকার উন্নয়নের জোয়ারে ভাসছে শাহরাস্তি মতলব পিইসি ও সমমান পরীক্ষায় প্রথম দিনে অনুপস্থিত ১৫১ চাঁদপুরে বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী অত্যন্ত জাঁকজমকভাবে পালন হবে বেহেশতী নারীর ৪ গুণ গ্রান্ড দুবাই এয়ারশো-এ প্রধানমন্ত্রীর যোগদান মৈত্রী শিশু উদ্যান এন্ড হাইস্কুলে মিলাদ ও দোয়া অনুষ্ঠিত

মঙ্গলবার   ১৯ নভেম্বর ২০১৯   অগ্রাহায়ণ ৫ ১৪২৬   ২১ রবিউল আউয়াল ১৪৪১

দৈনিক চাঁদপুর
সর্বশেষ:
একবছরে পাঁচগুণ মুনাফা বেড়েছে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের আমাজন বাঁচাতে লিওনার্দোর ৫০ মিলিয়ন ডলারের অনুদান রাজধানীতে চার জঙ্গি আটক ১৬২৬৩ ডায়াল করলেই মেসেজে প্রেসক্রিপশন পাঠাচ্ছেন ডাক্তার জোরশোরে চলছে রূপপুর পারমাণবিক প্রকল্পের কাজ
৮৬

উচ্চবর্ণে বিয়ে, মেয়ের বাড়ির লোকজন কুপিয়ে মারল ছেলেকে

প্রকাশিত: ১১ জুলাই ২০১৯  

উচ্চবর্ণের মেয়েকে বিয়ে করার খেসারত ছেলেকে দিতে হলো প্রাণ দিয়ে। জায়গা মতো সুযোগ পেয়ে মেয়ের বাড়ির লোকজন ওই ছেলেকে কুপিয়ে মেরে ফেলেছে।
সোমবার রাতে ঘটনাটি ঘটেছে গুজরাটের আমেদাবাদ জেলার ভারমর গ্রামে। ঘটনায় শ্বশুরবাড়ির ৮ জনের বিরুদ্ধে খুনের মামলা রুজু করেছে পুলিশ।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যমের খবরে বলা হয়, দলিত সম্প্রদায়ের হরেশ সোলাঙ্কি প্রেমের সম্পর্কে জড়িয়েছিলেন উচ্চবর্ণের ঊর্মিমালা বেনের সঙ্গে। ছ’মাস আগে মা-বাবার বিরুদ্ধে গিয়ে সোলাঙ্কি বিয়ে করেছিলেন ঊর্মিমালা বেনকে। তারপরেই তাকে নিয়ে নিজের বাড়ি গান্ধীধাম চলে আসেন সোলাঙ্কি। যেখানে থাকেন সোলাঙ্কির বাবা-মাও। ঊর্মিমালার পরিবার বিয়েতে রাজি না থাকলেও এই বিয়ে মেনে নিয়েছিলেন সোলাঙ্কির পরিবার।

স্থানীয় পুলিশ জানায়, মেয়ের পরিবার চেয়েছিলেন এ বিয়ে ভেঙে দিতে। তারা তাদের মেয়েকে বাড়ি ফিরিয়ে আনতে চেয়েছিলেন। কিন্তু কিছুতেই তাকে ফিরিয়ে আনতে পারছিলেন না। তারা মেয়ের সঙ্গে কথা বলতে তাকে বাড়িতে ডেকে পাঠিয়েছিলেন। এরপরেই পরিবারের কথা মতো ভারমর গ্রামের বাড়িতে কথা বলতে যান ঊর্মিমালা বেন।

এ হত্যাকাণ্ডের নেপথ্যে রয়েছে আরো একটি ঘটনা। ঊর্মিমালা ভারগ্রামে যাওয়ার পরে স্ত্রীর সঙ্গে কোনোরকম যোগাযোগই করতে পারছিলেন না সোলাঙ্কি। তার মা-বাবা চাইছিলেন তাকে বাড়িতে ফিরিয়ে আনতে। নিজের ভাবি সন্তানের জন্যও চিন্তায় ছিলেন তিনি। এ ঝামেলা মেটাতে মহিলা সহায়তা কেন্দ্রের শরণাপন্নও হয়েছিলেন সোলাঙ্কি। পরে স্ত্রীকে ফিরিয়ে আনতে শ্বশুরবাড়ি রওনা দেন মহিলা সহায়তা কেন্দ্রের কর্মকর্তার সঙ্গে। ঊর্মিমালার বাড়ির সামনে পৌঁছাতেই গাড়ির ভেতর অপেক্ষা করতে থাকেন তিনি। কিন্তু হঠাৎ করেই সে সময় ঊর্মিমালার এক নিকট আত্মীয় এসে খবর দেন, সোলাঙ্কি গাড়ির ভেতর বসে আছে। আর একথা শোনা মাত্রই বাড়ির ভেতর থেকে ধারালো অস্ত্র নিয়ে ছুটে যান বাড়ির সদস্যরা। ধারালো অস্ত্রের আঘাতে মাথায় গুরুতর চোট পান সোলাঙ্কি। সেই সঙ্গে শরীরের বাকি অংশগুলিতেও গুরুতর চোট পান। আঘাত সহ্য করতে না পেরে তখনই মাটিতে লুটিয়ে পড়েন।এ ঘটনায় আটজনের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করেছে পুলিশ।

দৈনিক চাঁদপুর
দৈনিক চাঁদপুর
এই বিভাগের আরো খবর