ব্রেকিং:
উৎপাদন বৃদ্ধিতে একযোগে কাজ করার অঙ্গীকার করোনাকালে চূড়ান্ত এমপিওভুক্তির সুখবর পেল ১৬৩৩ স্কুল-কলেজ করোনা মোকাবেলায় বঙ্গবন্ধুর স্বাস্থ্যসেবা দর্শন বৈশ্বিক ক্রয়াদেশ পূরণে সক্ষম বাংলাদেশ ॥ শেখ হাসিনা মানুষের পাশে দাঁড়াচ্ছে মানুষ, দৃষ্টান্ত স্থাপন করে চলেছে করোনা পরীক্ষা হবে চার বেসরকারি হাসপাতালে ২০ হাজারের বেশি আইসোলেশন শয্যা প্রস্তুত রয়েছে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী করোনা আক্রান্তের শরীরের অক্সিজেনের পরিমাণ ঘরেই পরীক্ষার উপায় দেশে ২৪ ঘণ্টায় রেকর্ড সংখ্যক আক্রান্ত, আরো ৮ মৃত্যু করোনা মোকাবিলায় বাংলাদেশের প্রশংসা করলেন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী দেশে ৫৪৯ নতুন করোনা রোগী শনাক্ত, আরো ৩ মৃত্যু হাসপাতাল থেকে পালানো করোনা রোগীকে বাগান থেকে উদ্ধার চাঁদপুরে ২০০০ পরিবারের মাঝে ইফতার সামগ্রী বিতরণ চীনের ৪ বিশেষজ্ঞ ঢাকায় আসছেন ভেন্টিলেটর-সিসিইউ স্থাপনে ১৪শ` কোটি টাকার জরুরি প্রকল্প নির্দেশনা না মানায় গণস্বাস্থ্যের কিট গ্রহণ করিনি বাংলাদেশে ১৯ মের মধ্যে করোনা বিদায় নেবে ৯৭ শতাংশ চাকরির বয়স শিথিলের বিষয় ভাবছে সরকার মানসম্মত কোন ধাপ অতিক্রম করেনি গণস্বাস্থ্যের কিট প্রধানমন্ত্রীর অনুদানের টাকা পেলেন ১৫ চরমপন্থী
  • শুক্রবার   ০৫ জুন ২০২০ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ২২ ১৪২৭

  • || ১২ শাওয়াল ১৪৪১

সর্বশেষ:
একবছরে পাঁচগুণ মুনাফা বেড়েছে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের আমাজন বাঁচাতে লিওনার্দোর ৫০ মিলিয়ন ডলারের অনুদান ১৬২৬৩ ডায়াল করলেই মেসেজে প্রেসক্রিপশন পাঠাচ্ছেন ডাক্তার জোরশোরে চলছে রূপপুর পারমাণবিক প্রকল্পের কাজ
৯১৬

ধরা পড়লো সর্বোচ্চ বড় আকারের আড়াই কেজি ওজনের ইলিশ

দৈনিক চাঁদপুর

প্রকাশিত: ১৫ সেপ্টেম্বর ২০১৯  

এ যাবৎকালের বড় আকৃতির একটি ইলিশ মাছ হাতে নিয়ে টেকনাফ বাসস্টেশন বাজারে বসে আছেন বিক্রেতা। মাছটি দেখতে ভিড় জমাচ্ছেন ক্রেতারাও। আড়াই কেজি ওজনের ইলিশ মাছ তো আর রোজ রোজ দেখতে পাওয়া যায় না!

কক্সবাজারের টেকনাফ উপজেলায় এক জেলের জালে ধরা পড়েছে আড়াই কেজির বেশি ওজনের এই ইলিশটি। আজ শনিবার ভোরে নাফ নদীতে জাল ফেললে মাছটি ধরা পড়ে।

উপজেলার হ্নীলা ইউনিয়নের জাদিমোরা গ্রামের বাসিন্দা নবী হোসেনের ছেলে জেলে মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলমের (৩৮) জালে মাছটি ধরা পড়ে।

প্রত্যক্ষদর্শী জেলে আবদুল খালেক বলেন, জাহাঙ্গীর পাঁচ-ছয় বছর ধরে নাফ নদীতে মাছ ধরছেন। শুক্রবার রাতে ছোট একটি নৌকায় করে ইলিশ ধরার জন্য নদীতে জাল ফেলে আসেন তিনি। শনিবার সকালে জাল তুলে দেখেন, জালে ৪৮টি ইলিশ মাছ ধরা পড়েছে। এর মধ্যে একটি মাছ দেখতে বিশাল। ওজন করে দেখা যায়, ২ কেজি ৬০০ গ্রাম। বাকি মাছগুলোর ওজন ৩৫০ থেকে ৫০০ গ্রামের মতো।

বড় আকৃতির একটি ইলিশ মাছ হাতে নিয়ে টেকনাফ বাসস্টেশন বাজারে বসে আছেন বিক্রেতা। মাছটি দেখতে ভিড় জমাচ্ছেন ক্রেতারাও। আড়াই কেজি ওজনের ইলিশ মাছ তো আর রোজ রোজ দেখতে পাওয়া যায় না!

যাঁর জালে মাছটি ধরা পড়েছে, সেই জাহাঙ্গীর আলম বলেন, ‘প্রতি কেজি দেড় হাজার টাকা দরে আড়াই কেজি ওজনের এই মাছটির দাম চাইছি ৩ হাজার ৯০০ টাকা। আর বাকি মাছগুলো ৬০০ টাকা কেজি দাম চাইছি।’

স্থানীয় মাছ ব্যবসায়ী মোহাম্মদ শফিক বলেন, চলতি বছর বাজারে এক থেকে দেড় কেজি ওজনের ইলিশগুলো ১ হাজার থেকে ১ হাজার ২০০ টাকায় বিক্রি হয়েছে। তবে এত বড় ইলিশ খুব কমই ধরা পড়ে।

জানতে চাইলে টেকনাফ উপজেলা জ্যেষ্ঠ মৎস্য কর্মকর্তা মো. দেলোয়ার হোসেন প্রথম আলোকে বলেন, ‘চলতি বছর এক থেকে দেড় কেজি ওজনের ইলিশ ধরা পড়ছে জেলেদের জালে। বড় একটি ইলিশ ধরা পড়ার খবরটি পেয়েছি। সাধারণত এত বড় ইলিশের সহজে দেখা মেলে না।’

দৈনিক চাঁদপুর
দৈনিক চাঁদপুর
নগর জুড়ে বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর