ব্রেকিং:
স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের ছবি ব্যবহার করে ফেসবুকে প্রতারণা উৎপাদন বৃদ্ধিতে একযোগে কাজ করার অঙ্গীকার করোনাকালে চূড়ান্ত এমপিওভুক্তির সুখবর পেল ১৬৩৩ স্কুল-কলেজ করোনা মোকাবেলায় বঙ্গবন্ধুর স্বাস্থ্যসেবা দর্শন বৈশ্বিক ক্রয়াদেশ পূরণে সক্ষম বাংলাদেশ ॥ শেখ হাসিনা মানুষের পাশে দাঁড়াচ্ছে মানুষ, দৃষ্টান্ত স্থাপন করে চলেছে করোনা পরীক্ষা হবে চার বেসরকারি হাসপাতালে ২০ হাজারের বেশি আইসোলেশন শয্যা প্রস্তুত রয়েছে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী করোনা আক্রান্তের শরীরের অক্সিজেনের পরিমাণ ঘরেই পরীক্ষার উপায় দেশে ২৪ ঘণ্টায় রেকর্ড সংখ্যক আক্রান্ত, আরো ৮ মৃত্যু করোনা মোকাবিলায় বাংলাদেশের প্রশংসা করলেন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী দেশে ৫৪৯ নতুন করোনা রোগী শনাক্ত, আরো ৩ মৃত্যু হাসপাতাল থেকে পালানো করোনা রোগীকে বাগান থেকে উদ্ধার চাঁদপুরে ২০০০ পরিবারের মাঝে ইফতার সামগ্রী বিতরণ চীনের ৪ বিশেষজ্ঞ ঢাকায় আসছেন ভেন্টিলেটর-সিসিইউ স্থাপনে ১৪শ` কোটি টাকার জরুরি প্রকল্প নির্দেশনা না মানায় গণস্বাস্থ্যের কিট গ্রহণ করিনি বাংলাদেশে ১৯ মের মধ্যে করোনা বিদায় নেবে ৯৭ শতাংশ চাকরির বয়স শিথিলের বিষয় ভাবছে সরকার মানসম্মত কোন ধাপ অতিক্রম করেনি গণস্বাস্থ্যের কিট
  • বৃহস্পতিবার   ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২০ ||

  • আশ্বিন ৯ ১৪২৭

  • || ০৫ সফর ১৪৪২

সর্বশেষ:
একবছরে পাঁচগুণ মুনাফা বেড়েছে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের আমাজন বাঁচাতে লিওনার্দোর ৫০ মিলিয়ন ডলারের অনুদান ১৬২৬৩ ডায়াল করলেই মেসেজে প্রেসক্রিপশন পাঠাচ্ছেন ডাক্তার জোরশোরে চলছে রূপপুর পারমাণবিক প্রকল্পের কাজ
২৪২

নাভানা হাসপাতালে ভুল চিকিৎসা কেড়ে নিল রোগীর প্রাণ

দৈনিক চাঁদপুর

প্রকাশিত: ২৭ জানুয়ারি ২০২০  


চাঁদপুর শহরের নাভানা হাসপাতালে ২ সন্তানের জননী তুহিন বেগম ভুল চিকিৎসায় মারা যান। রোগীর শারীরিক অবস্থার অবনতি হলেও সঠিক সময় চিকিৎসক না আসায় রোগীর মৃত্যু হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। নিহত তুহিন বেগমের স্বামী মিজানুর রহমান জানান, রোববার ভোর ৪টায় সাংবাদিক ও পুলিশকে জানানোর সুযোগ না দিয়ে হাসপাতালের ব্যবস্থাপনা পরিচালক কিশোর কুমার সিংহ রায়সহ অন্য স্টাফরা চিকিৎসার টাকা না রেখে অ্যাম্বুলেন্স ডেকে এনে মৃত রোগীকে হাসপাতাল থেকে বের করে দেন। এ ব্যাপারে থানায় মামলার দায়ের প্রস্ততি চলছে।

নিহত রোগী তুহিন বেগমের স্বামী ও আত্মীয়-স্বজনরা জানান, তুহিন বেগমের পেটে প্রচ- ব্যথা হলে গত শুক্রবার (২৪ জানুয়ারি) দুপুরে গাইনী চিকিৎসক সামছুন্নাহার তানিয়াকে দেখানো হয়। তার কথা মত আলট্রাসনোগ্রাম করানোর পর তুহিন বেগমের পেটে টিউমার হয়েছে বলে তিনি জানান। সেমতে তাকে হাসপাতালে ভর্তি হতে বলেন। তুহিন বেগমের স্বামী তার স্ত্রীকে নাভানা হসপিটালে ভর্তি করেন। তুহিনকে সোমবার অপারেশনের সময় নির্ধারণ করা হয়। হঠাৎ গত শনিবার সন্ধ্যা ৭টায় কোনো রকম পরীক্ষা-নিরীক্ষা ছাড়া তুহিন বেগমকে অপারেশনের জন্য অপারেশন থিয়েটারে নিয়ে যান চিকিৎসক সামছুন্নাহার তানিয়া। সেখানে সামছুন্নাহার তানিয়া ও তার স্বামী ডাঃ মোঃ হাসানুর রহমান মিলে তুহিন বেগমকে অপারেশন করেন। রাত সাড়ে ৭টায় আধা ঘন্টা রাখার পর রোগী তুহিন বেগমকে অজ্ঞান অবস্থায় হাসপাতালের বেডে দিয়ে দেয়া হয়। রাত ২টায় রোগী তুহিন বেগমের জ্ঞান ফিরলে তিনি প্রচ- যন্ত্রণায় ছটফট করতে থাকেন ও কাতরাতে থাকেন। তখন রোগীর সাথে থাকা নাছিমা বেগম, হাওয়া বেগম ও বিউটি বেগম, সিস্টার সাহিদা বেগমকে বিয়টি জানালেও কোনো চিকিৎসক না আসায় রোগী তুহিন বেগমের শারিরিক অবস্থা মারাত্মক অবনতি ঘটে। সিস্টার সাহিদা বেগম জানান, হঠাৎ রোগীর শরীরে খিচুনি দেখা দেয়। এক পর্যায় তিনি প্রচ- যন্ত্রণায় ছটফট করে ও কাতরাতে কাতরাতে ভোর পৌনে ৪টায় মারা যান।

নিহত তুহিন বেগমের স্বামী মিজানুর রহমান জানান, হাসপাতালের ব্যবস্থাপনা পরিচালক কিশোর কুমার সিংহ রায়সহ অন্য স্টাফরা নাভানা হসপিটালের চিকিৎসার টাকা না রেখে কোনো অনুরোধ না শুনে তড়িঘড়ি করে চালক সুমনের অ্যাম্বুলেন্স ডেকে এনে মৃত রোগীকে জোর করে বের করে দেন। মিজানুর রহমান আরো বলেন, আমি আমার স্ত্রীকে কেন ভুল চিকিৎসা দিয়ে মারলো তার জন্য প্রশাসনের নিকট এ হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের শাস্তি দাবি করছি। আমি চাঁদপুর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জকে বিষয়টি জানিয়েছি। মামলার প্রস্তুতি নিচ্ছি।

এ ব্যাপারে চিকিৎসক মোঃ হাসানুর রহমান বলেন, রাত ৮টায় রোগী তুহিনকে অজ্ঞান না করে অবশ করে পেট কেটে ওবারিয়াম সিস্ট (এটা হচ্ছে ভেতরে পানি উপরে পর্দা) কেটে ফেলে দেয়া হয়। পরে তার জ্ঞান ফিরলে আমি চলে আসি। রাতে তার অবস্থা খারাপ হলে ডিউটি ডাক্তার জীবন বিভিন্ন চিকিৎসা দিলেও তাকে বাঁচানো যায়নি। প্রচ- ব্যথায় (এমআই) হার্ট অ্যাটাক করেছে।

এ ব্যাপারে চিকিৎসক সামছুন্নাহার তানিয়া জানান, আমি অপারেশন করিনি। আমি অপারেশনের সময় পাশে ছিলাম।

এ ব্যাপারে নাভানা হসপিটালের ব্যবস্থাপনা পরিচালক কিশোর কুমার সিংহ রায় মুঠোফোনে জানান, এ ব্যাপারে তার কিছু বলা বা জানা নেই। আমি সরকারকে টেঙ্ দিয়ে ব্যবসা করি। এ বিষয়ে আমি জবাব দিবো না। রোগী চিকিৎসার জন্যে ভর্তি হয়েছে, যে চিকিৎসক অপারেশন করেছে, তিনি সেটা জানেন। কিছু জানতে হলে রোগীর স্বামীকে নিয়ে আসেন।

দৈনিক চাঁদপুর
দৈনিক চাঁদপুর
নগর জুড়ে বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর