ব্রেকিং:
উৎপাদন বৃদ্ধিতে একযোগে কাজ করার অঙ্গীকার করোনাকালে চূড়ান্ত এমপিওভুক্তির সুখবর পেল ১৬৩৩ স্কুল-কলেজ করোনা মোকাবেলায় বঙ্গবন্ধুর স্বাস্থ্যসেবা দর্শন বৈশ্বিক ক্রয়াদেশ পূরণে সক্ষম বাংলাদেশ ॥ শেখ হাসিনা মানুষের পাশে দাঁড়াচ্ছে মানুষ, দৃষ্টান্ত স্থাপন করে চলেছে করোনা পরীক্ষা হবে চার বেসরকারি হাসপাতালে ২০ হাজারের বেশি আইসোলেশন শয্যা প্রস্তুত রয়েছে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী করোনা আক্রান্তের শরীরের অক্সিজেনের পরিমাণ ঘরেই পরীক্ষার উপায় দেশে ২৪ ঘণ্টায় রেকর্ড সংখ্যক আক্রান্ত, আরো ৮ মৃত্যু করোনা মোকাবিলায় বাংলাদেশের প্রশংসা করলেন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী দেশে ৫৪৯ নতুন করোনা রোগী শনাক্ত, আরো ৩ মৃত্যু হাসপাতাল থেকে পালানো করোনা রোগীকে বাগান থেকে উদ্ধার চাঁদপুরে ২০০০ পরিবারের মাঝে ইফতার সামগ্রী বিতরণ চীনের ৪ বিশেষজ্ঞ ঢাকায় আসছেন ভেন্টিলেটর-সিসিইউ স্থাপনে ১৪শ` কোটি টাকার জরুরি প্রকল্প নির্দেশনা না মানায় গণস্বাস্থ্যের কিট গ্রহণ করিনি বাংলাদেশে ১৯ মের মধ্যে করোনা বিদায় নেবে ৯৭ শতাংশ চাকরির বয়স শিথিলের বিষয় ভাবছে সরকার মানসম্মত কোন ধাপ অতিক্রম করেনি গণস্বাস্থ্যের কিট প্রধানমন্ত্রীর অনুদানের টাকা পেলেন ১৫ চরমপন্থী
  • শুক্রবার   ২৯ মে ২০২০ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ১৫ ১৪২৭

  • || ০৫ শাওয়াল ১৪৪১

সর্বশেষ:
একবছরে পাঁচগুণ মুনাফা বেড়েছে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের আমাজন বাঁচাতে লিওনার্দোর ৫০ মিলিয়ন ডলারের অনুদান ১৬২৬৩ ডায়াল করলেই মেসেজে প্রেসক্রিপশন পাঠাচ্ছেন ডাক্তার জোরশোরে চলছে রূপপুর পারমাণবিক প্রকল্পের কাজ
১০৫৩

‘পিপিপির মাধ্যমে বিটিএমসির বন্ধ মিলগুলো চালু হবে’

দৈনিক চাঁদপুর

প্রকাশিত: ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৯  

বস্ত্র ও পাটমন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী জানিয়েছেন, বাংলাদেশ টেক্সটাইল মিলস করপোরেশনের (বিটিএমসি) বন্ধ টেক্সটাইল মিলগুলো সরকারি-বেসরকারি অংশীদারিত্ব বা ‘পাবলিক প্রাইভেট পার্টনারশিপ (পিপিপি)’ এর মাধ্যমে আবার চালু করা হবে।মঙ্গলবার রাজধানীর কারওয়ান বাজারে বিটিএমসি ভবনে এক আলোচনা সভায় এ কথা জানান তিনি।

মন্ত্রী বলেন, বর্তমান সরকার বিটিএমসির টেক্সটাইল মিলগুলো সরকারি সহায়তায় বা পিপিপির মাধ্যমে চালু করার পরিকল্পনা নিয়েছে। এর আওতায় টেক্সটাইল পল্লী গড়ে তোলা হবে। এতে নতুন নতুন কর্মসংস্থানের সুযোগ তৈরির হওয়ার ফলে দেশে বেকার সমস্যার সমাধান হবে।

তিনি আরো বলেন, জোট সরকারের সময়ে দেশে বিদ্যুতের ব্যাপক ঘাটতি ছিল। কিন্তু এখন বিদ্যুতের কোনো অভাব নেই। অর্থাৎ নতুন শিল্পাঞ্চল চালু করতে হলে যে বিদ্যুতের দরকার, দেশে তার কোনো ঘাটতি নেই। সর্বোপরি বন্ধ মিলগুলো পুনরায় চালু করে শিল্পায়নের ধারাকে ত্বরান্বিত করা হবে।

অব্যবহৃত কোনো জমি ফেলে রাখা চলবে না উল্লেখ করে দস্তগীর গাজী বলেন, যত বেশি জমি ব্যবহৃত হবে, দেশ তত বেশি উন্নয়নের দিকে এগিয়ে যাবে। দেশ এগিয়ে যাচ্ছে, নতুন নতুন শিল্প কারখানা হচ্ছে। গার্মেন্টস খাত অনেক এগিয়েছে, সামনে আরো এগিয়ে যাবে।এর পরিপ্রেক্ষিতে পিপিপির মাধ্যমে নতুন টেক্সটাইলগুলো কীভাবে আরো দ্রুততম সময়ের মধ্যে চালু করার ব্যবস্থা করা যায়, তার ব্যবস্থা করা হবে। এজন্য সরকার  ও বেসরকারি উদ্যোক্তাদের পরিকল্পনা এবং সহযোগিতা দরকার বলেও মন্তব্য করেন পাটমন্ত্রী।

এ পর্যন্ত বিটিএমসির ১৬ মিলকে পিপিপির মাধ্যমে চালু করার জন্য তালিকাবদ্ধ করা হয়েছে। এর মধ্যে ২টি মিল পিপিপির মাধ্যমে চালু করার প্রক্রিয়া চূড়ান্ত হয়েছে। বাকি মিলগুলো পর্যায়ক্রমে চালু করার প্রক্রিয়ায় রয়েছে।

আলোচনা সভায় আরো উপস্থিত ছিলেন, বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়ের ভারপ্রাপ্ত সচিব মো. মিজানুর রহমান, বিটিএমসির চেয়ারম্যান বিগ্রেডিয়ার জেনারেল মুহাম্মদ কামরুজ্জামানসহ প্রমুখ।

দৈনিক চাঁদপুর
দৈনিক চাঁদপুর
অর্থনীতি বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর