ব্রেকিং:
উৎপাদন বৃদ্ধিতে একযোগে কাজ করার অঙ্গীকার করোনাকালে চূড়ান্ত এমপিওভুক্তির সুখবর পেল ১৬৩৩ স্কুল-কলেজ করোনা মোকাবেলায় বঙ্গবন্ধুর স্বাস্থ্যসেবা দর্শন বৈশ্বিক ক্রয়াদেশ পূরণে সক্ষম বাংলাদেশ ॥ শেখ হাসিনা মানুষের পাশে দাঁড়াচ্ছে মানুষ, দৃষ্টান্ত স্থাপন করে চলেছে করোনা পরীক্ষা হবে চার বেসরকারি হাসপাতালে ২০ হাজারের বেশি আইসোলেশন শয্যা প্রস্তুত রয়েছে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী করোনা আক্রান্তের শরীরের অক্সিজেনের পরিমাণ ঘরেই পরীক্ষার উপায় দেশে ২৪ ঘণ্টায় রেকর্ড সংখ্যক আক্রান্ত, আরো ৮ মৃত্যু করোনা মোকাবিলায় বাংলাদেশের প্রশংসা করলেন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী দেশে ৫৪৯ নতুন করোনা রোগী শনাক্ত, আরো ৩ মৃত্যু হাসপাতাল থেকে পালানো করোনা রোগীকে বাগান থেকে উদ্ধার চাঁদপুরে ২০০০ পরিবারের মাঝে ইফতার সামগ্রী বিতরণ চীনের ৪ বিশেষজ্ঞ ঢাকায় আসছেন ভেন্টিলেটর-সিসিইউ স্থাপনে ১৪শ` কোটি টাকার জরুরি প্রকল্প নির্দেশনা না মানায় গণস্বাস্থ্যের কিট গ্রহণ করিনি বাংলাদেশে ১৯ মের মধ্যে করোনা বিদায় নেবে ৯৭ শতাংশ চাকরির বয়স শিথিলের বিষয় ভাবছে সরকার মানসম্মত কোন ধাপ অতিক্রম করেনি গণস্বাস্থ্যের কিট প্রধানমন্ত্রীর অনুদানের টাকা পেলেন ১৫ চরমপন্থী
  • সোমবার   ০১ জুন ২০২০ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ১৮ ১৪২৭

  • || ০৮ শাওয়াল ১৪৪১

সর্বশেষ:
একবছরে পাঁচগুণ মুনাফা বেড়েছে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের আমাজন বাঁচাতে লিওনার্দোর ৫০ মিলিয়ন ডলারের অনুদান ১৬২৬৩ ডায়াল করলেই মেসেজে প্রেসক্রিপশন পাঠাচ্ছেন ডাক্তার জোরশোরে চলছে রূপপুর পারমাণবিক প্রকল্পের কাজ
৬২২

ভাঙ্গনের কবলে আবারও চাঁদপুরে শহর রক্ষা বাঁধ

দৈনিক চাঁদপুর

প্রকাশিত: ১৬ অক্টোবর ২০১৯  

চাঁদপুর শহরের পুরান বাজার হরিসভা মন্দির এলাকায় আবারও ভাঙন দেখা দিয়েছে। সোমবার সন্ধ্যায় শহর রক্ষা বাঁধের ৪০ মিটার এলাকার সিসি ব্লক দেবে যায়। এতে স্থানীয়দের ৪টি বসতঘর বিলীন হয়ে গেছে। এ অবস্থ্থায় আশপাশের ৬টি বসতঘর ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠান সরিয়ে নেওয়া হয়েছে। ভাঙনের হুমকির মুখে রয়েছে মন্দিরসহ আরও ১০টি বসতঘর। খবর পেয়ে জেলা প্রশাসক মাজেদুর রহমান খান, পুলিশ সুপার মাহাবুবুর রহমান (পিপিএম বার) ও পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী আবু রায়হান ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

এলাকাবাসী জানায়, হঠাৎ করেই মন্দিরের উত্তর-পশ্চিম পাশে নদীপাড়ে শহর রক্ষা বাঁধের বেশকিছু সিসি ব্লক তলিয়ে যায়। এ সময় বেশ কয়েকটি বসতবাড়ি ও দোকানপাট নিরাপদে সরিয়ে নেওয়া হয়।এদিকে মঙ্গলবার সকাল থেকেই জিও ব্যাগবোঝাই বালুর বস্তা ভাঙন স্থানে ফেলছে সংশ্নিষ্ট কর্তৃপক্ষ। তাৎক্ষণিক ভাঙনরোধে পানি উন্নয়ন বোর্ডের তত্ত্বাবধানে বালুভর্তি জিও ব্যাগ ডাম্পিং শুরু হয়।
চাঁদপুর পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী আবু রায়হান বলেন, সোমবার রাতে হঠাৎ করে ভাঙন শুরু হয়। হরিসভা এলাকাসহ পুরো শহর রক্ষা বাঁধই হুমকির মুখে। আমরা ভাঙন রোধে তাৎক্ষণিক বালুভর্তি জিও ব্যাগ ডাম্পিং শুরু করেছি। এখন মজুদকৃত ৩ হাজার বস্তা বালুভর্তি জিও ব্যাগ ফেলা হবে।

২মাস আগে হরিসভার এই এলাকা আরেক দফা মেঘনার ভাঙনের শিকার হয়। তখন প্রায় তিনশ' মিটার শহর রক্ষা বাঁধ নদীতে দেবে যায়। সেবারও পানি উন্নয়ন বোর্ড ভাঙন ঠেকাতে কাজ করে। আবারও সেখানে ভাঙন শুরু হওয়ায় হরিসভা, মধ্য শ্রীরামদী ও পশ্চিম শ্রীরামদী এলাকা এখন মারাত্মক হুমকির মুখে পড়েছে।

দৈনিক চাঁদপুর
দৈনিক চাঁদপুর
নগর জুড়ে বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর