ব্রেকিং:
চাঁদপুরে গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্টের টুকিটাকি অনৈতিক কাজের অভিযোগে মমিনবাগ থেকে আটক ২ শিক্ষাবিদ অধ্যক্ষ প্রফেসর মনোহর আলীর সুস্থতা কামনায় মিলাদ ও দোয়া জাতির পিতার স্বপ্ন বাস্তবায়নে এখানকার খেলোয়াড়রা কাজ করে যাবে ফরিদগঞ্জ থানার ওসিসহ দুই পুলিশ অফিসার পৃরস্কৃত দেশ গড়ার প্রত্যয়ে খেলাধুলাসহ অন্যান্য ক্ষেত্রে এগিয়ে যেতে চাই চাঁদপুর শহরে তিন প্রতিষ্ঠানকে সতর্ক ও মেয়াদোত্তীর্ণ পণ্য জব্দ জামানত রেখে ঋণ দিতে হবে: অর্থমন্ত্রী ৪৫ টাকা কেজি দরে পেঁয়াজ দিচ্ছে টিসিবি শিগগিরই কমবে পেঁয়াজের দাম শেখ হাসিনার আন্তর্জাতিক ৩৭ পদক লাভ আরো দুটি বোয়িং বিমান কেনার ইঙ্গিত প্রধানমন্ত্রীর পাইকপাড়া দক্ষিণ ইউনিয়নে ভোটার তালিকা হালনাগাদ কার্যক্রম শুরু খেলোয়াড়দের মাঝে চাঁদপুর পৌরসভার জার্সি বিতরণ নবাগত পুলিশ সুপারকে জেলা সংবাদপত্র সম্পাদক পরিষদের ফুলেল শুভেচ্ছা হাইমচর উপজেলার দুর্গাপুর উচ্চ বিদ্যালয় কাবাডি দল জেলায় চ্যাম্পিয়ন হাজীগঞ্জে ডাকাতিয়া নদী থেকে নবজাতকের লাশ উদ্ধার চাঁদপুরে ইলিশ মাছ রক্ষায় সব বাহিনী কাজ করবে শাহরাস্তিতে ৪টি খাবার হোটেলকে ভ্রাম্যমাণ আদালতে জরিমানা ৫৮ শিক্ষার্থীর জন্যে সরকারের বার্ষিক ব্যয় ১০ লাখ টাকা

বুধবার   ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯   আশ্বিন ২ ১৪২৬   ১৮ মুহররম ১৪৪১

দৈনিক চাঁদপুর
সর্বশেষ:
একবছরে পাঁচগুণ মুনাফা বেড়েছে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের আমাজন বাঁচাতে লিওনার্দোর ৫০ মিলিয়ন ডলারের অনুদান রাজধানীতে চার জঙ্গি আটক ১৬২৬৩ ডায়াল করলেই মেসেজে প্রেসক্রিপশন পাঠাচ্ছেন ডাক্তার জোরশোরে চলছে রূপপুর পারমাণবিক প্রকল্পের কাজ
৪৪৬

মন্ত্রিত্ব থেকে অবসরে গেলে ফ্রিল্যান্সিং করব

প্রকাশিত: ৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯  

তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেছেন, ‘আমি স্বাধীনচেতা মানুষ। অন্যের অধীনস্থ হয়ে চাকরি করতে আমি পছন্দ করি না। এ জন্য মন্ত্রিত্ব থেকে কখনো অবসরে গেলে আমি ফ্রিল্যান্সিং করব। বিশ্বায়নের এই যুগে এটি একটি চমৎকার পেশা।’

বৃহস্পতিবার (৫ সেপ্টেম্বর) রাজধানীর কৃষিবিদ ইনস্টিটিউটে বিশ্ববিখ্যাত আইটি কোম্পানি কোডার্সট্রাস্ট আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন তিনি। এসময় পলক আরো বলেন, ‘একজন চাকুরের বেতন নির্ধারণ করে তার প্রতিষ্ঠান কিন্তু একজন ফ্রিল্যান্সার নিজেই নিজের বেতন নির্ধারণ করেন। এখানে থেকেই অনুমান যায় ফ্রিল্যান্সার কতটা স্বাধীন! এই স্বাধীন পেশায় কাজ করতে পারলে নিঃসন্দেহে আমি আনন্দিত হবো।’

এদিকে আগারগাঁওয়ে বাংলাদেশ বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (বিডা) মিলনায়তনে এক মতবিনিময় সভায় বাংলাদেশে প্রায় ছয় লাখ ফ্রিল্যান্সার রয়েছে উল্লেখ করে তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেন, ‘পৃথিবীর অন্য কোন দেশে ফ্রিল্যান্সারদের জন্য সহায়তা করার প্লাটফর্ম করেনি। ফ্রিল্যান্সারকে ধরা হয় স্বাধীন পেশা তাদের একটি ‘ফ্রি কার্ড’ চালু করবো। সেই কার্ডের নাম হবে ফ্রি কার্ড।, আমরা বলছি ‘ফ্রি আইডি’ যাকে মুক্ত আইডি বলা যায়, আবার অনেকেই একে ফ্রিল্যান্সার আইডিও বলতে পারে। তবে এটি নিয়ে উপস্থিত যে কেউ যেকোন মতামত দিতে পারেন, ‘ফ্রি আইডি’ কার্ডে ব্যক্তিগত তথ্য, মোবাইল নম্বরসহ বিশেষ কোড থাকবে যেগুলোর মাধ্যমে তাকে সনাক্ত করা সম্ভব হবে এবং ব্যাংক লোনসহ বিভিন্ন সুবিধা পাবেন।’

বিশ্বে আমরাই প্রথম ফ্রিল্যান্সারদের ফ্রি কার্ড করবো মন্তব্য করে প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘ফ্রিল্যান্সারদের আয়ের টাকা ২০২৪ সাল পর্যন্ত করমুক্ত করে দেব আমরা। তাদেরকে একটি দাপ্তরিক পরিচয় দেওয়া হবে যেন তাদের পেশা সম্পর্কে সাধারণ মানুষ ভালোভাবে জানতে পারে। কারণ সারাবিশ্বের বড় বড় ব্যবসায়ী ও প্রতিষ্ঠান কাছে সৃজনশীল ও উদ্ভাবনী উপায়ে বাংলাদেশকে পরিচয় করিয়ে দিচ্ছে তারা।’

কোডার্সট্রাস্ট আয়োজিত অপর এক অনুষ্ঠানে পলক বলেন, ‘তথ্যপ্রযুক্তি খাতের সঙ্গে পরিচিত হওয়ার পর বাংলাদেশে অনেক পেশা হারিয়ে গেছে, আবার অনেক পেশা নতুন করে তৈরিও হয়েছে। নতুন পেশাগুলোতে আমাদের তরুণরা, বিশেষ করে নারীরা অনেক ভালো করছেন। শুধু মুখে নয়, আমি হৃদয় থেকে নারী স্বাধীনতার পক্ষে। তবে প্রকৃত অর্থে নারীদেরকে স্বাধীন হতে হলে তাদেরকে অর্থনৈতিকভাবে স্বাবলম্বী হতে হবে।’

২০২৫ সালের মধ্যে ২০ লাখ তরুণ-তরুণীর জন্য প্রযুক্তিখাতে কাজের পরিবেশ সৃষ্টি করতে চায় তার মন্ত্রণালয়। এদের মাধ্যমে বাংলাদেশ ২৫ বিলিয়ন ডলার মূল্যের পণ্য বাংলাদেশ রফতানি করতে চায় উল্লেখ করে প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘ফ্রিল্যান্সিং এখন একটি বিশাল জগৎ। অর্থনীতির ভাষায় এটিকে ট্রিলিয়ন ডলার মার্কেট বলা হয়। আমাদের নারীরা যদি এর সঙ্গে যুক্ত হয় তাহলে তাদের যেমন অর্থনৈতিক স্বাধীনতা আসবে, তেমনিভাবে বাংলাদেশও বৈদেশিক মুদ্রা অর্জনের মাধ্যমে লাভবান হবে।’

তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী আরো বলেন, ‘বাংলাদেশে বর্তমানে ১ লাখ ৭০ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান রয়েছে। যেখানে সাড়ে চার কোটি শিক্ষার্থী পড়াশোনা করছে। তাদের সবার কর্মসংস্থান করা সরকারের পক্ষে হয়ত সম্ভব হবে না। তবে সরকার তাদের জন্য সারাবিশ্বকে উন্মুক্ত করে দেবে। আউটসোর্সিংয়ের যে ট্রিলিয়ন ডলার মার্কেট রয়েছে সেটিকে ধরতে হবে। এর নূন্যতম অংশও যদি বাংলাদেশে আসে তাহলে দেশে কোনো দারিদ্রতা থাকবে না। বেকার থাকতে হবে না।’

প্রসঙ্গত, তথ্যপ্রযুক্তি খাতে বাংলাদেশি নারীদের দক্ষতা বিকাশ ও আন্তর্জাতিকভাবে পরিচিত করে দিতে বিশ্ব বিখ্যাত আইটি প্রতিষ্ঠান কোডার্সট্রাস্ট নতুন একটি প্রকল্পের সূচনা করেছে। এ প্রকল্পের মাধ্যমে এক হাজার সুবিধাবঞ্চিত নারীকে ফ্রিল্যান্সিং বিষয়ে বিনামূল্যে দক্ষতা উন্নয়নমূলক প্রশিক্ষণ ও কর্মসংস্থান প্রদান করা হবে।

এদিকে আগারগাঁওয়ে বাংলাদেশ বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (বিডা) মিলনায়তনে এক মতবিনিময় সভায় পলক জানান, দেশের প্রায় ছয় লাখ ফ্রিল্যান্সারকে পরিচয়পত্র দিতে কাজ শুরু করছে সরকার। সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ বিষয়ক উপদেষ্টা সালমান এফ রহমান। এছাড়া বিভিন্ন সরকারি প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা, বিএফডিএসের প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।

দৈনিক চাঁদপুর
দৈনিক চাঁদপুর
এই বিভাগের আরো খবর