ব্রেকিং:
প্রধানমন্ত্রীর স্বর্ণ পদক পেয়েছেন ফরক্কাবাদের ইমাম হোসেন হাইমচর জাটকা রক্ষা সংক্রান্ত উপজেলা টাস্কফোর্স কমিটির সভা হাজীগঞ্জ পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হৃদরোগে আক্রান্ত একি দৃশ্য দেখল চাঁদপুরবাসী চাঁদপুরে কিশোর গ্যাংয়ের ১০ এসএসসি পরীক্ষার্থী কারাগারে চাঁদপুর সরকারি জেনারেল হাসপাতালে ৩০৪ পদের ৫৬টিই শূন্য হাজীগঞ্জে এ্যাম্বুলেন্সের মুখামুখি সংঘর্ষে অটো চালকের মৃত্যু,আহত চাঁদপুরে মুজিববর্ষে ১০ হাজার কিমি নদী ড্রেজিং হবে রাতে বাল্কহেড চলাচল বন্ধে সহযোগিতা চায় চাঁদপুর কোস্টগার্ড নবম শ্রেণি থেকেই বিষয় ভিত্তিক বিভাজন না করার পক্ষে প্রধানমন্ত্রী পেঁয়াজ রফতানির নিষেধাজ্ঞা তুলে নিলো ভারত প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানিয়ে চীনা প্রেসিডেন্টের চিঠি গুজব নয় সত্য জানুনঃ ব্যাংক আমানতের বিপরীতে ১ লক্ষ টাকা দিচ্ছে কে? সমঝোতা করেও ফারজানাকে বাঁচাতে পারলো না পরিবার! আজ চাঁদপুর সাহিত্য একাডেমির মাসিক সাহিত্য আসর চাঁদপুর জেলা জজকোর্টের নূতন পিপি অ্যাডঃ রনজিত কুমার রায় চৌধুরী নিখোঁজের ৪ দিন পর মেঘনায় মিললো দুলালের লাশ চাঁদপুর বই মেলা সমাপ্ত ফরিদগঞ্জে কেরোয়া মাদীনাতুল উল্লুম মাদ্রাসার মসজিদের কাজ উদ্বোধন ফরিদগঞ্জে অনুষ্ঠিত হয়েছে স্টুডেন্ট কাউন্সিল নির্বাচন
  • বৃহস্পতিবার   ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ||

  • ফাল্গুন ১৫ ১৪২৬

  • || ০৩ রজব ১৪৪১

সর্বশেষ:
একবছরে পাঁচগুণ মুনাফা বেড়েছে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের আমাজন বাঁচাতে লিওনার্দোর ৫০ মিলিয়ন ডলারের অনুদান ১৬২৬৩ ডায়াল করলেই মেসেজে প্রেসক্রিপশন পাঠাচ্ছেন ডাক্তার জোরশোরে চলছে রূপপুর পারমাণবিক প্রকল্পের কাজ
১২৬

শচীন দেব বর্মনের জন্মবার্ষিকী আজ

দৈনিক চাঁদপুর

প্রকাশিত: ১ অক্টোবর ২০১৯  


লোকজ ও রাগ সংগীতের সংমিশ্রণে সংগীত ভুবনে এক নতুন ধারা সৃষ্টি করেছেন শচীন দেব বর্মন। বর্তমান রিমেকের বাজারে তিনি এখনো সমসাময়িক। তাঁর কালজয়ী গান ‘কে যাস রে ভাটির গাঙ বাইয়া’, ‘রঙ্গিলা রঙ্গিলা’, ‘আমি তাকদুম তাকদুম বাজাই বাংলাদেশের ঢোল’, ‘ঘাটে লাগাইয়া ডিঙা’, ‘বাঁশি শুনে আর কাজ নাই’- এমন বহু গানের রিমেক প্রায়ই শুনতে পাওয়া যায়। কিংবদন্তি এই সঙ্গীতশিল্পীর আজ ১১৩তম জন্ম বার্ষিকী।

শচীন দেব বর্মণের জন্ম ১৯০৬ সালের ১ অক্টোবর তৎকালীন ব্রিটিশ ভারতের কুমিল্লায়। তিনি ত্রিপুরার চন্দ্রবংশীয় রাজ পরিবারের সন্তান। ১৯২০ সালে কুমিল্লা জিলা স্কুল থেকে  থেকে ম্যাট্রিক পাস করে ভিক্টোরিয়া কলেজে ভর্তি হন। এরপর ১৯২২ সালে ঐ কলেজ থেকে আইএ পাস করেন। পরবর্তীতে  ১৯২৫ সালে কোলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বি.এ. পাশ করেন।

বাব নবদ্বীপচন্দ্র দেববর্মণের কাছে সঙ্গীত শিক্ষা নেন শচীন। এরপর তিনি ১৯৩২ সাল থেকে কলকাতা বেতার কেন্দ্রে গান গাওয়া শুরু করেন এবং অতি দ্রুত লোকজ এবং ধ্রুপদী সংগীতের জনপ্রিয় মুখ হয়ে ওঠেন। ১৯৩৫ সালে তিনি কলকাতা সঙ্গীত সম্মেলনে স্বর্ণপদক জিতেন। এর পর তাঁকে আর পেছন ফিরে তাকাতে হয়নি।
১৯৩২ সালে হিন্দুস্তান মিউজিক প্রোডাক্টস থেকে শচীন দেব বর্মণের প্রথম রেকর্ড বের হয়। তাঁর প্রথম দুটি গান ছিল ‘ডাকিলে কোকিল রোজ বিহানে’ এবং ‘এ পথে আজ এসো প্রিয়’।
১৯৩৪ সালে অল ইন্ডিয়ান মিউজিক কনফারেন্সে গান গেয়ে তিনি সবার দৃষ্টি আকর্ষণে সমর্থ হন। তাঁর সুরারোপিত গান ‘মেরা সুন্দর স্বপ্না বীত গ্যায়া’ তদানীন্তন বলিউডে বিশাল সাড়া জাগায়। নিশিথে যাইয়ো ফুলবনে, শোন গো দখিন হাওয়া,  কে যাস রে ভাটি গাঙ বাইয়া, তাকদুম তাকদুম বাজাই বাংলাদেশের ঢোল, ওরে সুজন নাইয়া, তুমি এসেছিলে পরশু কাল কেন আসনি, আমারে ছাড়িয়া বন্ধু কই রইলা রে; ইত্যাদি শচীন কর্তার কিছু বিখ্যাত গান।
‘ট্যাক্সি ড্রাইভার’ ও ‘অভিমান’ চলচ্চিত্রের জন্য ফিল্ম ফেয়ার সেরা সঙ্গীত পরিচালক পুরস্কার; ‘আরাধনা’ সিনেমার জন্য শ্রেষ্ঠ প্লে ব্যাক ও ‘জিন্দেগী জিন্দেগী’ ছায়াছবির জন্য শ্রেষ্ঠ সঙ্গীত পরিচালক হিসেবে জাতীয় পুরস্কার;  ‘পিয়াসা’ ছবির জন্যে এশিয়ান ফিল্ম সোসাইটি পুরস্কার; ভারতের চতুর্থ সর্বোচ্চ বেসামরিক সম্মাননা ‘পদ্মশ্রী’সহ আরো বহু উপাধিতে ভূষিত হয়েছেন তিনি।

শচীন দেব বর্মণ তাঁর সংগীত জীবনে অসংখ্য গানের সুর করেছেন, যার অধিকাংশ গানই লতা মঙ্গেশকর, মান্না দে, কিশোর কুমার, মোঃ রফি ও আশা ভোসলের মতো কিংবদন্তি শিল্পীদের গাওয়া। তিনি প্রায় অর্ধশতাধিক চলচ্চিত্রের সঙ্গিত পরিচালক হিসেবে কাজ করেন। 
১৯৭৫ সালের ৩১ অক্টোবর মুম্বাইয়ে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন সংগীত ভুবনের এই কিংবদন্তি।

দৈনিক চাঁদপুর
দৈনিক চাঁদপুর
বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর