ব্রেকিং:
উৎপাদন বৃদ্ধিতে একযোগে কাজ করার অঙ্গীকার করোনাকালে চূড়ান্ত এমপিওভুক্তির সুখবর পেল ১৬৩৩ স্কুল-কলেজ করোনা মোকাবেলায় বঙ্গবন্ধুর স্বাস্থ্যসেবা দর্শন বৈশ্বিক ক্রয়াদেশ পূরণে সক্ষম বাংলাদেশ ॥ শেখ হাসিনা মানুষের পাশে দাঁড়াচ্ছে মানুষ, দৃষ্টান্ত স্থাপন করে চলেছে করোনা পরীক্ষা হবে চার বেসরকারি হাসপাতালে ২০ হাজারের বেশি আইসোলেশন শয্যা প্রস্তুত রয়েছে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী করোনা আক্রান্তের শরীরের অক্সিজেনের পরিমাণ ঘরেই পরীক্ষার উপায় দেশে ২৪ ঘণ্টায় রেকর্ড সংখ্যক আক্রান্ত, আরো ৮ মৃত্যু করোনা মোকাবিলায় বাংলাদেশের প্রশংসা করলেন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী দেশে ৫৪৯ নতুন করোনা রোগী শনাক্ত, আরো ৩ মৃত্যু হাসপাতাল থেকে পালানো করোনা রোগীকে বাগান থেকে উদ্ধার চাঁদপুরে ২০০০ পরিবারের মাঝে ইফতার সামগ্রী বিতরণ চীনের ৪ বিশেষজ্ঞ ঢাকায় আসছেন ভেন্টিলেটর-সিসিইউ স্থাপনে ১৪শ` কোটি টাকার জরুরি প্রকল্প নির্দেশনা না মানায় গণস্বাস্থ্যের কিট গ্রহণ করিনি বাংলাদেশে ১৯ মের মধ্যে করোনা বিদায় নেবে ৯৭ শতাংশ চাকরির বয়স শিথিলের বিষয় ভাবছে সরকার মানসম্মত কোন ধাপ অতিক্রম করেনি গণস্বাস্থ্যের কিট প্রধানমন্ত্রীর অনুদানের টাকা পেলেন ১৫ চরমপন্থী
  • শুক্রবার   ১৪ আগস্ট ২০২০ ||

  • শ্রাবণ ৩০ ১৪২৭

  • || ২৩ জ্বিলহজ্জ ১৪৪১

সর্বশেষ:
একবছরে পাঁচগুণ মুনাফা বেড়েছে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের আমাজন বাঁচাতে লিওনার্দোর ৫০ মিলিয়ন ডলারের অনুদান ১৬২৬৩ ডায়াল করলেই মেসেজে প্রেসক্রিপশন পাঠাচ্ছেন ডাক্তার জোরশোরে চলছে রূপপুর পারমাণবিক প্রকল্পের কাজ
১৬২

সাপের কামড়ে সাপুড়ের মৃত্যু

দৈনিক চাঁদপুর

প্রকাশিত: ৭ অক্টোবর ২০১৯  

তন্ত্র মন্ত্রের জোরে নয় মনের সাহসে সাপ ধরে জীবিকা নির্বাহ করা কুমিল্লা তিতাস উপজেলার মাছিমপুর গ্রামের দিনমজুর সিদ্দিক মিয়া (৪৫)আর নেই।শনিনার দিবাগত রাতে (৬ অক্টোবর) নিজ হাতে ধরা সাপের কামড়ে তাহার নিজ বাড়িতে ইন্তেকাল করেন(ইন্না লিল্লাহীৃ. রাজিউন)।

ছিদ্দিক মিয়া বিষধর সাপ ধরা, সর্পদংশনের বিষ নামানোসহ সাপের বিষ ও দাঁত দিয়ে চিকিৎসা করে এলাকায় পরিচিতি লাভ করেছেন দিনমজুর সিদ্দিক মিয়া।সিদ্দিক মিয়া তিতাস উপজেলার মাছিমপুর গ্রামের মৃত নাগর এর ছেলে। তিনি সাপ ধরার পাশাপাশি অবসর সময় রিকশাও চালান।

পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, তার কাজের নানা অভিজ্ঞতার কথা। প্রায় ৩০ বছর ধরে তিনি কোন রকমের জাদু, টোনা, মন্ত্র ছাড়াই সাপ ধরা, সর্পদংশনের বিষ নামানোসহ সাপের বিষ ও দাঁত দিয়ে চিকিৎসা করে আসছে। তিনি ছোট বেলা থেকেই সাপ নিয়ে খেলা করার প্রতি উৎসাহী ছিলেন। আর সে উৎসাহ থেকে আজ সাপ ধরা তার নেশা ও পেশা হয়ে উঠেছে। আর সেই শখের সাপ ধরার নেশাই জীবনের অবসান ঘটালো সেই সাপ।নিজের ধরা সাপের কাঁমড়ে শনিবার রাতে মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েন সাপুড়ে ছিদ্দিক মিয়ার।

দৈনিক চাঁদপুর
দৈনিক চাঁদপুর
নগর জুড়ে বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর