ব্রেকিং:
দেশে করোনায় ৮২ পুলিশ সদস্যের মৃত্যু, আক্রান্ত ১৮ হাজার আয়কর দিতে হবে ৩০ তারিখের মধ্যে গ্রামীণ বিদ্যুৎ সুবিধা উন্নয়নে ২০০ মিলিয়ন ডলার ঋণ দেবে এডিবি দেশের নানা আয়োজনে ১৭-২৬ মার্চ যোগ দেবেন বিশ্ব নেতারা স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের ছবি ব্যবহার করে ফেসবুকে প্রতারণা উৎপাদন বৃদ্ধিতে একযোগে কাজ করার অঙ্গীকার করোনাকালে চূড়ান্ত এমপিওভুক্তির সুখবর পেল ১৬৩৩ স্কুল-কলেজ করোনা মোকাবেলায় বঙ্গবন্ধুর স্বাস্থ্যসেবা দর্শন বৈশ্বিক ক্রয়াদেশ পূরণে সক্ষম বাংলাদেশ ॥ শেখ হাসিনা মানুষের পাশে দাঁড়াচ্ছে মানুষ, দৃষ্টান্ত স্থাপন করে চলেছে করোনা পরীক্ষা হবে চার বেসরকারি হাসপাতালে ২০ হাজারের বেশি আইসোলেশন শয্যা প্রস্তুত রয়েছে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী করোনা আক্রান্তের শরীরের অক্সিজেনের পরিমাণ ঘরেই পরীক্ষার উপায় দেশে ২৪ ঘণ্টায় রেকর্ড সংখ্যক আক্রান্ত, আরো ৮ মৃত্যু করোনা মোকাবিলায় বাংলাদেশের প্রশংসা করলেন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী দেশে ৫৪৯ নতুন করোনা রোগী শনাক্ত, আরো ৩ মৃত্যু হাসপাতাল থেকে পালানো করোনা রোগীকে বাগান থেকে উদ্ধার চাঁদপুরে ২০০০ পরিবারের মাঝে ইফতার সামগ্রী বিতরণ চীনের ৪ বিশেষজ্ঞ ঢাকায় আসছেন ভেন্টিলেটর-সিসিইউ স্থাপনে ১৪শ` কোটি টাকার জরুরি প্রকল্প
  • বৃহস্পতিবার   ২৮ অক্টোবর ২০২১ ||

  • কার্তিক ১৪ ১৪২৮

  • || ২১ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

সর্বশেষ:
একবছরে পাঁচগুণ মুনাফা বেড়েছে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের আমাজন বাঁচাতে লিওনার্দোর ৫০ মিলিয়ন ডলারের অনুদান ১৬২৬৩ ডায়াল করলেই মেসেজে প্রেসক্রিপশন পাঠাচ্ছেন ডাক্তার জোরশোরে চলছে রূপপুর পারমাণবিক প্রকল্পের কাজ

অমানবিক বাড়িওয়ালারা সাবধান!

দৈনিক চাঁদপুর

প্রকাশিত: ২৫ এপ্রিল ২০২০  

করোনাভাইরাসের কারণে গোটা দেশ এখন স্তব্ধ। মানুষ যখন ঘরবন্দি তখন জরুরি প্রয়োজনে কিছু পেশার মানুষ জীবনের ঝুঁকি নিয়ে কাজ করে যাচ্ছেন। এদের মধ্যে ডাক্তার, নার্স, স্বাস্থ্যকর্মী, আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ও গণমাধ্যমকর্মীরা অন্যতম। এই মহামারিতে সম্মুখ যোদ্ধা তারা। কিন্তু অভিযোগ উঠেছে এই যোদ্ধাদের সঙ্গেই অমানবিক আচরণ করছে রাজধানীর কিছু বাড়িওয়ালা। সহায়তা না করে উল্টো বাড়ি ছেড়ে দিতে বলছেন তারা। তবে এমন অভিযোগ পেলেই আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা নেয়ার নির্দেশনা দেয়া আছে সরকারের এবং তা বেশ কার্যকর।
এরইমধ্যে রাজধানীর মিরপুর, ধানমন্ডি, কলাবাগানসহ বেশ কয়েকটি এলাকায় বেশকিছু ভাড়াটিয়াদের বাড়ি থেকে বের করে দেয়ার ঘটনা ঘটেছে। 

সম্প্রতি ধানমন্ডির পান্থপথ এলাকায় এক মাসের ভাড়া বাকি থাকায় দুই মাসের নবজাতকসহ তিন সন্তান ও তার বাবা-মাকে মারধর করে ঘর থেকে তাড়িয়ে দেন বাড়ির মালিক শম্পা। সেদিন রাতে ঘটনাস্থলে র‍্যাব, পুলিশ ও গণমাধ্যমকর্মীদের কোন অনুরোধের তোয়াক্কা করেননি বাড়ির মালিক শম্পা। এরপর ওই ঘটনায় ভাড়াটিয়া বাড়ির মালিক শম্পার বিরুদ্ধে ভাড়াটিয়াকে মারধর ও হত্যাচেষ্টার মামলা করেন। পরে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

মিরপুরে দৈনিক মুক্ততথ্য পত্রিকার নির্বাহী সম্পাদক নুরুল আনসারী জরুরি প্রয়োজনে বাসার বাইরে যাওয়ায় বাড়ির মালিক তাকে বাসা থেকে বের করে দিয়েছিলেন। দুই দিন বন্ধুর বাসায় থেকে পুলিশের সহায়তায় বাসায় ফিরেন তিনি।

এদিকে, রাজধানীর তুরাগের বাউনিয়া এলাকার বেশ কয়েকজন ভাড়াটিয়ার সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, বাড়ির মালিকরা হুমকি দিয়েছেন গত মাস ও চলতি মাসের বাড়ি ভাড়া একসঙ্গে দিতে না পারলে বাড়ি থেকে বের করে দেয়া হবে। এমনকি বাড়িওয়ালাদের অনেক অনুরোধ করেও লাভ হচ্ছে না। তারা তাদের সিদ্ধান্তেই অটল রয়েছেন।

শুধু তাই নয়, করোনাভাইরাসের এমন পরিস্থিতিতে রাজধানীতে অনেক সাধারণ রোগীকে চিকিৎসা শেষে বাসায় ঢুকতে না দেয়ারও অভিযোগ পাওয়া গেছে। তাছাড়া নানা অজুহাতে অনেক বাড়িওয়ালা বাসা থেকে বের করে দিচ্ছেন ভাড়াটিয়াদের। 

চিকিৎসক নার্সসহ জরুরি সেবায় নিয়োজিত কোনো ব্যক্তি যদি এমন হয়রানির শিকার হন তাহলে পুলিশের কাছে সুনির্দিষ্ট অভিযোগ করতে বলেছে সরকার। অভিযুক্ত বাড়ির মালিকদের বিরুদ্ধে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেয়া হবে। 

এ বিষয়ে জানতে চাইলে ডিএমপির অতিরিক্ত কমিশনার কৃষ্ণ পদ রায় ডেইলি বাংলাদেশকে বলেন, চিকিৎসক নার্সসহ জরুরি সেবায় নিয়োজিতরা যদি এমন হয়রানির শিকার হন তাহলে আমার তাদের পাশে দাঁড়াব। তারা যাতে নিজ বাসাতেই থাকতে পারেন সে নিশ্চয়তা আমরা দিতে চাই। 

পুলিশ সদর দফতরের জনসংযোগ ও গণমাধ্যম শাখার এআইজি সোহেল রানা ডেইলি বাংলাদেশকে বলেন, করোনার এই মহামারিতে ডাক্তার, নার্স, স্বাস্থ্যকর্মী ও গণমাধ্যমকর্মীদের বাড়ি ভাড়ার নামে হয়রানি করলে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে। সেই সঙ্গে যদি কোন বাড়িওয়ালা ভাড়াটিয়ার সঙ্গে ভাড়ার নামে খারাপ ব্যবহার বা বাড়ি থেকে বের করে দেয় আপনারা সঙ্গে সঙ্গে ৯৯৯-এ কল করুন। তাৎক্ষণিক পুলিশ সেখানে পৌছে আইনি পদক্ষেপ নেবে।

বাড়িওয়ালাদের অনুরোধ করে পুলিশের এই কর্মকর্তা বলেন, করোনার এই মহামারির সময়ে ভাড়াটিয়াদের প্রতি আরো বেশি মানবিক হওয়াটা সব বাড়িওয়ালাদের কর্তব্য। সরকার এ ব্যাপারে অত্যন্ত কঠোর অবস্থানে রয়েছে। তাই কেউ ছাড় পাবে না।

সম্প্রতি বিদ্যুৎ, জ্বালানী ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালায়ের প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বিপু এক সংবাদ সম্মেলনে বলেছেন, করোনাভাইরাসের এমন বিপর্যয়ের সময় যেসব বাড়ির মালিকরা ভাড়াটিয়াদের হয়রানি করবে তাদের বাসার গ্যাস ও বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেয়া হবে।

বাড়িওয়ালাদের অনুরোধ জানিয়ে প্রতিমন্ত্রী বলেন, সব বাড়িওয়ালাদের এই বিপর্যয়ে মানবিক হওয়াটা অত্যন্ত প্রয়োজন। এটা এক প্রকার সামাজিক দায়িত্ব। 

এদিকে, যারা চিকিৎসক, নার্স ও স্বাস্থ্যকর্মীদের সঙ্গে অমানবিক আচরণ করছেন এমন বাড়িওয়ালাদের সাবধান হতে হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেছেন দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) চেয়ারম্যান ইকবাল মাহমুদ।

তিনি বলেন, জাতির এই সংকটময় সময়ে ডাক্তার, নার্স, ওয়ার্ডবয় এবং অন্যান্য স্বাস্থ্যকর্মী জীবনের মায়া ত্যাগ করে জাতির সেবায় নিয়োজিত। এদের সঙ্গে খারাপ আচরণ কিংবা কোনও ধরনের অসম্মান করা আইনগতভাবেই অপরাধ। যারা তাদের নিগৃহীত করছেন, বের করে দিতে চাইছেন তাদের সম্পদের অনুসন্ধান করবে দুদক।

উল্লেখ্য, দেশে বিদ্যমান ‘সংক্রামক রোগ আইন, ২০১৮’ অনুসারে এ জাতীয় আচরণ শাস্তিযোগ্য অরপরাধ। কেউ যদি এই আইনের লঙ্ঘন করে, তাহলে তাদের বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট আইন প্রয়োগকারী সংস্থা শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করতে পারে।

দৈনিক চাঁদপুর
দৈনিক চাঁদপুর